ঢাকা ১২:৫৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :

সোয়া কোটি কিশোরীকে জরায়ু ক্যানসারের টিকা দেয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৩১:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২৩ ৮০ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ

জরায়ুমুখ ক্যানসার প্রতিরোধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পর্যায়ে হিউম্যান প্যাপিলোমাভা (এইচপিভি) টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। রোববার (১৫অক্টোবর) দুপুরে মানিকগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয় আয়োজনে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ওই ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সারা দেশের পঞ্চম থেকে নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত সব শিক্ষার্থী ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বহির্ভূত ১০ থেকে ১৪ বছর বয়সী কিশোরীদের বিনামূল্যে টিকা দেয়া হবে। প্রথম দিকে ২৩ লাখ কিশোরীকে এবং পর্যায়ক্রমে দেশের সোয়া কোটি মেয়েকে এই টিকা দেয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘এই টিকা জরায়ুমুখ ক্যানসার প্রতিরোধে খুবই কার্যকর এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক অনুমোদিত। এর কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। পরবর্তীতে অন্য নারীরাও এই টিকা নিতে পারবেন।’

জেলা প্রশাসক রেহেনা আক্তারের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডা. রাশিদা সুতানা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট গোলাম মহীউদ্দীন, পৌর মেয়র মো. রমজান আলী, সিভিল সার্জন ডা. মোয়াজ্জেম আলী খান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সুলতানুল আজম খান আপেল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকার, সদর স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. লুৎফর রহমান।

জেলা শহরের এস কে সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার মাধ্যমে এই টিকা কর্মসূচির উদ্বোধন করা হলো। আগামী ১৮ দিনের মধ্যে মানিকগঞ্জের এক হাজার ১৮৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৭১ হাজার ৪১৫ জন ছাত্রীকে এই দিকা দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

 

এসবিএন

ট্যাগস :

সোয়া কোটি কিশোরীকে জরায়ু ক্যানসারের টিকা দেয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ০৮:৩১:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২৩
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ

জরায়ুমুখ ক্যানসার প্রতিরোধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পর্যায়ে হিউম্যান প্যাপিলোমাভা (এইচপিভি) টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। রোববার (১৫অক্টোবর) দুপুরে মানিকগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয় আয়োজনে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ওই ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সারা দেশের পঞ্চম থেকে নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত সব শিক্ষার্থী ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বহির্ভূত ১০ থেকে ১৪ বছর বয়সী কিশোরীদের বিনামূল্যে টিকা দেয়া হবে। প্রথম দিকে ২৩ লাখ কিশোরীকে এবং পর্যায়ক্রমে দেশের সোয়া কোটি মেয়েকে এই টিকা দেয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘এই টিকা জরায়ুমুখ ক্যানসার প্রতিরোধে খুবই কার্যকর এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক অনুমোদিত। এর কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। পরবর্তীতে অন্য নারীরাও এই টিকা নিতে পারবেন।’

জেলা প্রশাসক রেহেনা আক্তারের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) ডা. রাশিদা সুতানা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট গোলাম মহীউদ্দীন, পৌর মেয়র মো. রমজান আলী, সিভিল সার্জন ডা. মোয়াজ্জেম আলী খান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সুলতানুল আজম খান আপেল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকার, সদর স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. লুৎফর রহমান।

জেলা শহরের এস কে সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার মাধ্যমে এই টিকা কর্মসূচির উদ্বোধন করা হলো। আগামী ১৮ দিনের মধ্যে মানিকগঞ্জের এক হাজার ১৮৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৭১ হাজার ৪১৫ জন ছাত্রীকে এই দিকা দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

 

এসবিএন