ঢাকা ০১:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :

সাহিত্যে নোবেল পেলেন জন ফসি

স্বাধীনবাংলা, আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৪২:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর ২০২৩ ৮৩ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, আন্তর্জাতিক খবরঃ

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। ২০২৩ সালে সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন জন ফসি। বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর) সুইডেনের রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি তার নাম ঘোষণা করেন। ফসের লেখা নাটক ও গদ্যের প্রশংসা করে সুইডিশ অ্যাকাডেমি বলেছে, যেসব কথা অনুচ্চারিত থেকে যায় সেগুলো লেখনিতে তুলে এনেছেন তিনি। তাঁর লেখা বিশ্বজুড়ে নানা ভাষায় অনূদিত হয়েছে।

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হওয়ায় পুরস্কারের ১ কোটি ১০ লাখ সুইডিশ ক্রোনা (১০ লাখ ডলার) পাবেন নরওয়েজিয়ান এই লেখক। গত বছর ফরাসি লেখক আনি এরনো এই পুরস্কার পেয়েছিলেন। জন ফসি ১৯৫৯ সালে নরওয়ের হাউজসুন্ডে জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র সাত বছর বয়সে এই লেখক গুরুতর দুর্ঘটনার শিকার হয়। তার লেখাতে সেই প্রভাব লক্ষ্য করা গেছে।

তিনি ইউরোপের সবচেয়ে জনপ্রিয় নাট্যকারদের একজন এবং তার বিরল পিন্টেরেস্ক নাটকের জন্য তাকে বছরের পর বছর নোবেলের জন্য প্রথম কাতারে রাখা হয়েছিল।

তার প্রথম উপন্যাস রউড, ভার্ট (লাল, কালো) ১৯৮৩ সালে প্রকাশিত হয়। যদি তাকে ছোট গল্পের লেখক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। তার ছোট গল্পের মধ্যে রয়েছে হান (সে)। এটি ১৯৮১ সালে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। ১৯৮৯ সালে তার রচিত উপন্যাস নস্টেট (বোটহাউস) এর মাধ্যমে একজন লেখক হিসাবে তার সাফল্য আসে।

২০০১ সাল থেকে সাহিত্যে ১১৫ টি নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয়। তবে প্রথম এবং দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের কারণে নোবেল কমিটি সাহিত্যে নোবেল দেওয়া বন্ধ রাখেন। ১৯১৪, ১৯১৮, ১৯৩৫, ১৯৪০, ১৯৪১, ১৯৪২ এবং ১৯৪৩ সালে সাহিত্যে পুরস্কার দেওয়া হয়নি।

সাহিত্যে চারটি পুরস্কার ভাগ করে দেওয়া হয়। তবে গত ৫০ বছর ধরে এককভাবে এ পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। সর্বশেষ ১৯৭৪ সালে আইভিন্ড জনসন এবং হ্যারি মার্টিনশন সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার ভাগ করে নেন। সূত্র: আল জাজিরা, দ্য গার্ডিয়ান।

 

এসবিএন

সাহিত্যে নোবেল পেলেন জন ফসি

প্রকাশের সময় : ০৮:৪২:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর ২০২৩
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, আন্তর্জাতিক খবরঃ

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। ২০২৩ সালে সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন জন ফসি। বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর) সুইডেনের রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি তার নাম ঘোষণা করেন। ফসের লেখা নাটক ও গদ্যের প্রশংসা করে সুইডিশ অ্যাকাডেমি বলেছে, যেসব কথা অনুচ্চারিত থেকে যায় সেগুলো লেখনিতে তুলে এনেছেন তিনি। তাঁর লেখা বিশ্বজুড়ে নানা ভাষায় অনূদিত হয়েছে।

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হওয়ায় পুরস্কারের ১ কোটি ১০ লাখ সুইডিশ ক্রোনা (১০ লাখ ডলার) পাবেন নরওয়েজিয়ান এই লেখক। গত বছর ফরাসি লেখক আনি এরনো এই পুরস্কার পেয়েছিলেন। জন ফসি ১৯৫৯ সালে নরওয়ের হাউজসুন্ডে জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র সাত বছর বয়সে এই লেখক গুরুতর দুর্ঘটনার শিকার হয়। তার লেখাতে সেই প্রভাব লক্ষ্য করা গেছে।

তিনি ইউরোপের সবচেয়ে জনপ্রিয় নাট্যকারদের একজন এবং তার বিরল পিন্টেরেস্ক নাটকের জন্য তাকে বছরের পর বছর নোবেলের জন্য প্রথম কাতারে রাখা হয়েছিল।

তার প্রথম উপন্যাস রউড, ভার্ট (লাল, কালো) ১৯৮৩ সালে প্রকাশিত হয়। যদি তাকে ছোট গল্পের লেখক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। তার ছোট গল্পের মধ্যে রয়েছে হান (সে)। এটি ১৯৮১ সালে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। ১৯৮৯ সালে তার রচিত উপন্যাস নস্টেট (বোটহাউস) এর মাধ্যমে একজন লেখক হিসাবে তার সাফল্য আসে।

২০০১ সাল থেকে সাহিত্যে ১১৫ টি নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয়। তবে প্রথম এবং দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের কারণে নোবেল কমিটি সাহিত্যে নোবেল দেওয়া বন্ধ রাখেন। ১৯১৪, ১৯১৮, ১৯৩৫, ১৯৪০, ১৯৪১, ১৯৪২ এবং ১৯৪৩ সালে সাহিত্যে পুরস্কার দেওয়া হয়নি।

সাহিত্যে চারটি পুরস্কার ভাগ করে দেওয়া হয়। তবে গত ৫০ বছর ধরে এককভাবে এ পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। সর্বশেষ ১৯৭৪ সালে আইভিন্ড জনসন এবং হ্যারি মার্টিনশন সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার ভাগ করে নেন। সূত্র: আল জাজিরা, দ্য গার্ডিয়ান।

 

এসবিএন