ঢাকা ০২:০৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :

শেখ হাসিনাকে থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

স্বাধীন বাংলা ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : ১২:০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৩৩ বার পঠিত

শেখ হাসিনাকে থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ

ফের বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী স্রেথা থাভিসিন। মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) তিনি শেখ হাসিনাকে এই শুভেচ্ছা বার্তা পাঠান।

ওই শুভেচ্ছা বার্তায় থাই প্রধানমন্ত্রী বলেন, থাই সরকার এবং জনগণের পক্ষ থেকে চমকপ্রদ সাফল্য এবং পঞ্চম মেয়াদে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী  নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাতে পেরে আমি সম্মানিত বোধ করছি।

তিনি জানান, গত পাঁচ দশক ধরে থাইল্যান্ড ও বাংলাদেশের মধ্যে উষ্ণ ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজমান।

দ্বিপাক্ষিক, আঞ্চলিক এবং বহুপাক্ষিক কাঠামোর মাধ্যমে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ করে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, জনগণের মধ্যে সংযোগ এবং টেকসই উন্নয়ন উভয় ক্ষেত্রেই প্রসারিত ও গভীর হয়েছে। আমি নিশ্চিত, আগামীতে দুই দেশ এবং জনগণের পারস্পরিক সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে।

আমি দুদেশের সহযোগিতা বাড়াতে নতুন সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার জন্য উন্মুখ। আমি আপনার সুস্বাস্থ্য এবং মহৎ প্রচেষ্টার সাফল্যের পাশাপাশি বাংলাদেশ এবং এর জনগণের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করছি এমনটাই উল্লেখ করেছেন শুভেচ্ছা বার্তায় থাই সরকার।

 

এসবিএন

ট্যাগস :

শেখ হাসিনাকে থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

প্রকাশের সময় : ১২:০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ

ফের বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী স্রেথা থাভিসিন। মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) তিনি শেখ হাসিনাকে এই শুভেচ্ছা বার্তা পাঠান।

ওই শুভেচ্ছা বার্তায় থাই প্রধানমন্ত্রী বলেন, থাই সরকার এবং জনগণের পক্ষ থেকে চমকপ্রদ সাফল্য এবং পঞ্চম মেয়াদে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী  নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাতে পেরে আমি সম্মানিত বোধ করছি।

তিনি জানান, গত পাঁচ দশক ধরে থাইল্যান্ড ও বাংলাদেশের মধ্যে উষ্ণ ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বিরাজমান।

দ্বিপাক্ষিক, আঞ্চলিক এবং বহুপাক্ষিক কাঠামোর মাধ্যমে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ করে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, জনগণের মধ্যে সংযোগ এবং টেকসই উন্নয়ন উভয় ক্ষেত্রেই প্রসারিত ও গভীর হয়েছে। আমি নিশ্চিত, আগামীতে দুই দেশ এবং জনগণের পারস্পরিক সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে।

আমি দুদেশের সহযোগিতা বাড়াতে নতুন সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার জন্য উন্মুখ। আমি আপনার সুস্বাস্থ্য এবং মহৎ প্রচেষ্টার সাফল্যের পাশাপাশি বাংলাদেশ এবং এর জনগণের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করছি এমনটাই উল্লেখ করেছেন শুভেচ্ছা বার্তায় থাই সরকার।

 

এসবিএন