ঢাকা ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo তিনদিন ধরে চলবে ঘূর্ণিঝড় রেমাল Logo পায়রা-মোংলায় ৭ নম্বর, চট্টগ্রাম-কক্সবাজারে ৬ নম্বর সংকেত Logo এমপি আনার হত্যার রহস্য উদঘাটন,খুনিরা চিহ্নিত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী Logo এমপি হত্যাকান্ডে জড়িত সবাইকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে: ডিবি প্রধান Logo ডিসি-ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ২৬১ বিলাসবহুল গাড়ি Logo এডিপি অনুমোদন Logo বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্রের নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম Logo তাপপ্রবাহের সতর্কবার্তা জারি করল আবহাওয়া অফিস Logo গুলিবিদ্ধ হয়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী Logo “স্বাস্থ্যঝুঁকি থেকে রক্ষা পেতে ৮০% এরও বেশি বিড়ি শ্রমিক চান বিকল্প কর্মসংস্থান”

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভালো না ক্ষতি, কি বলছেন ডায়েটিশিয়ান!

স্বাধীনবাংলা রির্পোটঃ
  • প্রকাশের সময় : ০৬:৩৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪ ১৭৬ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা রির্পোটঃ

ডিম খাওয়া আমাদের নিত্যদিনের অভ্যাস। সকালে ঘুম থেকে উঠে সিদ্ধ ডিম, সকালের নাশতায় ভাজি বা অমলেট, খাবারে তরকারি হিসেবে ডিম ভুনা কিংবা বিকেলের স্ন্যাকসে ডিমের বিভিন্ন পদ খাওয়া হয়। সবমিলে প্রতিদিন ডিম থাকেই। কিন্তু প্রতিদিন ডিম খাওয়া নিয়ে নানা মত রয়েছে অনেকের।

সম্প্রতি অনেককে বলতে দেখা যায়, ডিমের মতো উপকারী খাবার প্রতিদিন খাওয়া উচিত নয়। আবার কেউ কেউ এর বিপক্ষে যুক্তি দেখিয়ে বরং বেশি বেশি ডিম খাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু আসলেই কি ডিম প্রতিদিন খাওয়া উচিত নয়―নাকি বেশি বেশি খাওয়া ভালো। এ ব্যাপারে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন কলকাতা শহরের রুবি হাসপাতালের সিনিয়র ডায়েটিশিয়ান স্বাগতা মুখোপাধ্যায়। এবার তাহলে এ বিষয়ে জেনে নেয়া যাক।

পুষ্টিগুণে ভরপুর ডিম: একটি ডিম থেকে মোটামুটি ৭২ ক্যালোরি, ৫ গ্রাম ফ্যাট, ২০৬ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল, ৬৫ মিলিগ্রাম সোডিয়াম, ৫ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট এবং ৬ গ্রাম প্রোটিন পাওয়া যায়। এছাড়াও রয়েছে ভিটামিন-এ, ডি, ক্যালসিয়াম ও আয়রনের মতো উপকারী উপাদান এবং কিছু খনিজ। এসব উপাদান স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। এ জন্য প্রতিদিন ডিম খাওয়া হলে পুষ্টির ঘাটতি মিটে যায়। পাশাপাশি বিভিন্ন রোগব্যাধিও দূর করে।

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি উচিত: ডায়েটিশিয়ান স্বাগতা জানিয়েছেন, যেকোনো বয়সের একজন মানুষ দিনে একটি করে ডিম খেতে পারেন। এ জন্য শরীরে অ্যালবুমিন নামক একটি প্রোটিনের ঘাটতি পূরণ হয়। ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপের মতো অসুখ থাকলেও প্রতিদিন একটি করে ডিম খাওয়া যেতে পারে। তবে যদি কোনো কারণে ডিম খেলে সমস্যা হয়, তাহলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলতে হবে।

কোলেস্টেরল থাকলেও খাওয়া যাবে ডিম: কেউ কেউ মনে করেন, ডিম খেলে হয়তো কোলেস্টেরল বাড়ে। কথাটি আংশিক সত্য বলে জানালেন ডায়েটিশিয়ান স্বাগতা। তার ভাষ্যমতে, ডিমের কুসুমে খারাপ কোলেস্টেরল থাকলেও সেটি পরিমাণে খুবই কম। এ জন্য দিনে একটি ডিম খাওয়া যেতেই পারে। তবে কোলেস্টেরল রোগীদের দিনে একটির বেশি ডিম খাওয়া উচিত নয়। এতে সমস্যা বাড়ার সম্ভাবনা থাকে।

দিনে কয়টি ডিম খাওয়া ভালো: বয়স যদি কম থাকে তাহলে দিনে দুটি ডিম খাওয়া যেতে পারে। কিন্তু বয়স যদি ৩৫-এর বেশি হয়, তাহলে একটি ডিমের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকতে হবে। এতে শরীর-স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন ও কোলেস্টেরল থাকলেও দিনে একটি করে ডিম খেতে পারেন। তা না হলে স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে পারে। এ জন্য দিনে কয়টি ডিম খাওয়া হয়, সেটি খেয়াল রাখা জরুরি। আর কোনো সমস্যা হলে অবশ্যই চিকিৎসকের দ্বারস্থ হতে হবে।

 

এসবিএন

ট্যাগস :

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভালো না ক্ষতি, কি বলছেন ডায়েটিশিয়ান!

প্রকাশের সময় : ০৬:৩৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা রির্পোটঃ

ডিম খাওয়া আমাদের নিত্যদিনের অভ্যাস। সকালে ঘুম থেকে উঠে সিদ্ধ ডিম, সকালের নাশতায় ভাজি বা অমলেট, খাবারে তরকারি হিসেবে ডিম ভুনা কিংবা বিকেলের স্ন্যাকসে ডিমের বিভিন্ন পদ খাওয়া হয়। সবমিলে প্রতিদিন ডিম থাকেই। কিন্তু প্রতিদিন ডিম খাওয়া নিয়ে নানা মত রয়েছে অনেকের।

সম্প্রতি অনেককে বলতে দেখা যায়, ডিমের মতো উপকারী খাবার প্রতিদিন খাওয়া উচিত নয়। আবার কেউ কেউ এর বিপক্ষে যুক্তি দেখিয়ে বরং বেশি বেশি ডিম খাওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু আসলেই কি ডিম প্রতিদিন খাওয়া উচিত নয়―নাকি বেশি বেশি খাওয়া ভালো। এ ব্যাপারে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন কলকাতা শহরের রুবি হাসপাতালের সিনিয়র ডায়েটিশিয়ান স্বাগতা মুখোপাধ্যায়। এবার তাহলে এ বিষয়ে জেনে নেয়া যাক।

পুষ্টিগুণে ভরপুর ডিম: একটি ডিম থেকে মোটামুটি ৭২ ক্যালোরি, ৫ গ্রাম ফ্যাট, ২০৬ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল, ৬৫ মিলিগ্রাম সোডিয়াম, ৫ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট এবং ৬ গ্রাম প্রোটিন পাওয়া যায়। এছাড়াও রয়েছে ভিটামিন-এ, ডি, ক্যালসিয়াম ও আয়রনের মতো উপকারী উপাদান এবং কিছু খনিজ। এসব উপাদান স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। এ জন্য প্রতিদিন ডিম খাওয়া হলে পুষ্টির ঘাটতি মিটে যায়। পাশাপাশি বিভিন্ন রোগব্যাধিও দূর করে।

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি উচিত: ডায়েটিশিয়ান স্বাগতা জানিয়েছেন, যেকোনো বয়সের একজন মানুষ দিনে একটি করে ডিম খেতে পারেন। এ জন্য শরীরে অ্যালবুমিন নামক একটি প্রোটিনের ঘাটতি পূরণ হয়। ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপের মতো অসুখ থাকলেও প্রতিদিন একটি করে ডিম খাওয়া যেতে পারে। তবে যদি কোনো কারণে ডিম খেলে সমস্যা হয়, তাহলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলতে হবে।

কোলেস্টেরল থাকলেও খাওয়া যাবে ডিম: কেউ কেউ মনে করেন, ডিম খেলে হয়তো কোলেস্টেরল বাড়ে। কথাটি আংশিক সত্য বলে জানালেন ডায়েটিশিয়ান স্বাগতা। তার ভাষ্যমতে, ডিমের কুসুমে খারাপ কোলেস্টেরল থাকলেও সেটি পরিমাণে খুবই কম। এ জন্য দিনে একটি ডিম খাওয়া যেতেই পারে। তবে কোলেস্টেরল রোগীদের দিনে একটির বেশি ডিম খাওয়া উচিত নয়। এতে সমস্যা বাড়ার সম্ভাবনা থাকে।

দিনে কয়টি ডিম খাওয়া ভালো: বয়স যদি কম থাকে তাহলে দিনে দুটি ডিম খাওয়া যেতে পারে। কিন্তু বয়স যদি ৩৫-এর বেশি হয়, তাহলে একটি ডিমের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকতে হবে। এতে শরীর-স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন ও কোলেস্টেরল থাকলেও দিনে একটি করে ডিম খেতে পারেন। তা না হলে স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে পারে। এ জন্য দিনে কয়টি ডিম খাওয়া হয়, সেটি খেয়াল রাখা জরুরি। আর কোনো সমস্যা হলে অবশ্যই চিকিৎসকের দ্বারস্থ হতে হবে।

 

এসবিএন