ঢাকা ০১:১৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :

পেয়ারা খেলে যেসব উপকার পাবেন

স্বাধীনবাংলা, ডেস্ক নিউজঃ
  • প্রকাশের সময় : ০১:২৭:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১২৩ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা রির্পোটঃ

বাজারে কিংবা রাস্তায় হাঁটতে গেলেই দেখা মিলবে পেয়ারার। এই ফল মোটামুটি সারা বছর পাওয়া যায়। দেশীয় এই ফল দামে মোটামুটি সস্তা। পেয়ারার পুষ্টিগুণ অনেক বেশি। পেয়ারায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। পুষ্টিগুণ দিক দিয়ে পেয়ারা খেলে অনেক লাভ। আসুন জেনে নেই পেয়ারার পুষ্টিগুণের কথা-

১. পেয়ারা ডায়াবেটিস রোগীর জন্য খুবই উপকারী এবং  শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি ও অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট থাকে। যা শরীরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে।

২. কাঁচা পেয়ারা ভিটামিন এ ভালো উৎস। ভিটামিন এ কর্নিয়াকে সুস্থ রাখার পাশাপাশি রাতকানা রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

৩. পেয়ারা ডায়রিয়ার বিরুদ্ধে লড়তে পারে। তাই নিয়মিত পেয়ারা খেলে ডায়রিয়া হওয়ার আশঙ্কা কমে যাবে অনেকটা। পেয়ারার আছে ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষমতা।

৪. ক্যানসার রোগীরা পেয়ারা খেতে পারেন। কারণ ক্যানসার প্রতিরোধেও পেয়ারা কাজ করে। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, লাইকোপেন, ক্যানসার কোষের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে পারে।

৫. পেয়ারাতে থাকা পটাশিয়াম শরীরের রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। এ ছাড়া শ্বাসকষ্ট, সর্দি–কাশিতে প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

৬. মানসিক চাপ দূর করতে  সহায়তা করে পেয়ারা। এ ছাড়া পেশি আর স্নায়ুর কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে।

৭. পেয়ারার রস কোষ্ঠকাঠিন্য, আমাশয়সহ পেটের অসুখ সারাতে ভালো কাজ করে। ওজন কমাতেও সাহায্য করে পেয়ারা।

৮. পেয়ারা ওজন কমাতে সাহায্য করে এবং এই ফলের রস সর্দি-কাশি, কোষ্ঠকাঠিন্য ও আমাশয়সহ পেটের অসুখ সারাতে পারে।

৯. বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে জড়িত নানা রোগ যেমন: স্মৃতিভ্রংশ (আলঝেইমার), চোখে ছানি, আর্থরাইটিস বা হাঁটুব্যথা প্রতিরোধে পেয়ারা সহায়তা করে।

 

এসবিএন

ট্যাগস :

পেয়ারা খেলে যেসব উপকার পাবেন

প্রকাশের সময় : ০১:২৭:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা রির্পোটঃ

বাজারে কিংবা রাস্তায় হাঁটতে গেলেই দেখা মিলবে পেয়ারার। এই ফল মোটামুটি সারা বছর পাওয়া যায়। দেশীয় এই ফল দামে মোটামুটি সস্তা। পেয়ারার পুষ্টিগুণ অনেক বেশি। পেয়ারায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। পুষ্টিগুণ দিক দিয়ে পেয়ারা খেলে অনেক লাভ। আসুন জেনে নেই পেয়ারার পুষ্টিগুণের কথা-

১. পেয়ারা ডায়াবেটিস রোগীর জন্য খুবই উপকারী এবং  শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি ও অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট থাকে। যা শরীরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে।

২. কাঁচা পেয়ারা ভিটামিন এ ভালো উৎস। ভিটামিন এ কর্নিয়াকে সুস্থ রাখার পাশাপাশি রাতকানা রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

৩. পেয়ারা ডায়রিয়ার বিরুদ্ধে লড়তে পারে। তাই নিয়মিত পেয়ারা খেলে ডায়রিয়া হওয়ার আশঙ্কা কমে যাবে অনেকটা। পেয়ারার আছে ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষমতা।

৪. ক্যানসার রোগীরা পেয়ারা খেতে পারেন। কারণ ক্যানসার প্রতিরোধেও পেয়ারা কাজ করে। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, লাইকোপেন, ক্যানসার কোষের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে পারে।

৫. পেয়ারাতে থাকা পটাশিয়াম শরীরের রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। এ ছাড়া শ্বাসকষ্ট, সর্দি–কাশিতে প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

৬. মানসিক চাপ দূর করতে  সহায়তা করে পেয়ারা। এ ছাড়া পেশি আর স্নায়ুর কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে।

৭. পেয়ারার রস কোষ্ঠকাঠিন্য, আমাশয়সহ পেটের অসুখ সারাতে ভালো কাজ করে। ওজন কমাতেও সাহায্য করে পেয়ারা।

৮. পেয়ারা ওজন কমাতে সাহায্য করে এবং এই ফলের রস সর্দি-কাশি, কোষ্ঠকাঠিন্য ও আমাশয়সহ পেটের অসুখ সারাতে পারে।

৯. বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে জড়িত নানা রোগ যেমন: স্মৃতিভ্রংশ (আলঝেইমার), চোখে ছানি, আর্থরাইটিস বা হাঁটুব্যথা প্রতিরোধে পেয়ারা সহায়তা করে।

 

এসবিএন