ঢাকা ১২:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :

অবৈধভাবে চাল মজুদ রাখার অপরাধে দুই চাল ব্যবসায়ীকে অর্থদণ্ড

স্বাধীনবাংলা, স্টাফ রির্পাটারঃ
  • প্রকাশের সময় : ০৮:৫২:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪ ৩৯ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, স্টাফ রির্পাটারঃ

মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি বাজারে অবৈধভাবে চাল মজুদ রাখার অপরাধে দুই চাল ব্যবসায়ীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার আমঝুপি বাজারে মেসার্স আমজাদ খাদ্য ভাণ্ডার নামক একটি চাউলের প্রতিষ্ঠানে লাইসেন্স বহির্ভূতভাবে প্রায় ৩ হাজার বস্তা অবৈধভাবে চাউল মজুদ, চাউলের ক্রয়-বিক্রয় ভাউচার সংরক্ষণ না করা, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয়সহ বিভিন্ন অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির মালিক মো. আমজাদ হোসেনকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ৩০ হাজার  টাকা এবং মেসার্স আব্বাস খাদ্য ভাণ্ডার নামক প্রতিষ্ঠানে লাইসেন্স বহির্ভূতভাবে অবৈধ চাউল মজুদ ও মূল্যতালিকা যথাযথভাবে প্রদর্শন না করায় আব্বাস আলীকে ২০ হাজার জরিমানা করা হয়। সেই সঙ্গে ৭-১৫ দিনের মধ্যে সব চাউল বিক্রি করার নির্দেশ দেয়া হয়।

ভ্রমমাণ আদালতের পরিচালক ভোক্তা অধিকারের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ বলেন, ‘সরকার নির্ধারিত মূল্যের বাইরে বাজারে অতিরিক্ত দামে চাল বিক্রি বন্ধ করতে নিয়মিত অভিযান চলছে। আমঝুপি বাজারে দুটি চালের আড়তে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধভাবে ব্যাপক চাল মজুদ দেখতে পাওয়া যায়। দুজনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে সতর্ক করা হয়।

 

এসবিএন

ট্যাগস :

অবৈধভাবে চাল মজুদ রাখার অপরাধে দুই চাল ব্যবসায়ীকে অর্থদণ্ড

প্রকাশের সময় : ০৮:৫২:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪
সংবাদটি শেয়ার করুন :

স্বাধীনবাংলা, স্টাফ রির্পাটারঃ

মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি বাজারে অবৈধভাবে চাল মজুদ রাখার অপরাধে দুই চাল ব্যবসায়ীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার আমঝুপি বাজারে মেসার্স আমজাদ খাদ্য ভাণ্ডার নামক একটি চাউলের প্রতিষ্ঠানে লাইসেন্স বহির্ভূতভাবে প্রায় ৩ হাজার বস্তা অবৈধভাবে চাউল মজুদ, চাউলের ক্রয়-বিক্রয় ভাউচার সংরক্ষণ না করা, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয়সহ বিভিন্ন অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির মালিক মো. আমজাদ হোসেনকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ৩০ হাজার  টাকা এবং মেসার্স আব্বাস খাদ্য ভাণ্ডার নামক প্রতিষ্ঠানে লাইসেন্স বহির্ভূতভাবে অবৈধ চাউল মজুদ ও মূল্যতালিকা যথাযথভাবে প্রদর্শন না করায় আব্বাস আলীকে ২০ হাজার জরিমানা করা হয়। সেই সঙ্গে ৭-১৫ দিনের মধ্যে সব চাউল বিক্রি করার নির্দেশ দেয়া হয়।

ভ্রমমাণ আদালতের পরিচালক ভোক্তা অধিকারের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ বলেন, ‘সরকার নির্ধারিত মূল্যের বাইরে বাজারে অতিরিক্ত দামে চাল বিক্রি বন্ধ করতে নিয়মিত অভিযান চলছে। আমঝুপি বাজারে দুটি চালের আড়তে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধভাবে ব্যাপক চাল মজুদ দেখতে পাওয়া যায়। দুজনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করে সতর্ক করা হয়।

 

এসবিএন